ঢাকা দুপুর ২:৫৭, শুক্রবার, ১০ই জুলাই, ২০২০ ইং, ২৬শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জেএসসি পরীক্ষার্থী

কলম কিনে আনতে গিয়ে লাশ হলেন বাবা, ছেলে পরীক্ষার হলে

ছেলে জেএসসি পরীক্ষার্থী। ছেলে তার বাবাকে দোকান থেকে কলম কিনে আনতে বলে। আর ছেলের জন্য দোকানে কলম কিনে আনতে গিয়ে বেপরোয়া গতিতে আসা একটি মোটরসাইকেলের চাপায় ইসলাম মিয়া নিহত হন।

এদিকে, বাবার মৃত্যুর সংবাদে জেএসসি পরীক্ষার্থী নাফিজ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। বাবার মৃত্যুতে পরীক্ষা না দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সে। বাবার লাশ বাড়িতে রেখে কিছুতেই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে রাজি নয় নাফিজ।

এমন সংবাদে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ হোসেন দ্রুত তার নিজের গাড়ি দিয়ে নাফিজকে হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালের কেবিনে পরীক্ষা দেয়ার ব্যবস্থা করে দেন।

সোমবার সকালে এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের দক্ষিণপাড়া এলাকায়।

নিহত লেপতোশক ব্যবসায়ী ইসলাম মিয়া ওই এলাকার আব্দুস সামাদের ছেলে।

এলাকাবাসী ও নিহতের পরিবার বলছে, আড়াইহাজার উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের দক্ষিণপাড়া এলাকার ইসলাম মিয়ার ছেলে নাফিজ আড়াইহাজার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় হতে জেএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে। গতকাল ছিল তার ইংরেজি পরীক্ষা। সকাল ৮টার দিকে তার বাবাকে বলে দোকান থেকে কলম কিনে আনার জন্য। ছেলের জন্য বাবা কলম কিনে বাসায় ফেরার পথে বাড়ির সামনের রাস্তায় একটি মোটরসাইকেল চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই ইসলাম মিয়া মারা যান।

ইউএনও সোহাগ হোসেন বলেন, ‘জেএসসি পরীক্ষার্থী নাফিজের বাসায় গিয়ে তার পরিবারকে শান্তনা দিয়ে অসুস্থ নাফিজকে হাসপাতালে ভর্তি করে সেখানে তাকে পরীক্ষা দেয়ার ব্যবস্থা করা হয়। হাসপাতালে একজন শিক্ষক ও পুলিশ গার্ড দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, নাফিজ তার বাবাকে হারিয়ে এতিম হয়ে গেছে। তার লেখাপড়ার সকল কিছু ফ্রি করে দেয়ার ব্যবস্থা নেয়া হবে। আর মোটরসাইকেলচালক রাসেলকে আটক করা হয়েছে।

বিজনেস বাংলাদেশ/ইমরান

এ বিভাগের আরও সংবাদ
//graizoah.com/afu.php?zoneid=3354715