ঢাকা সকাল ৯:৪৩, মঙ্গলবার, ২৬শে মে, ২০২০ ইং, ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বিল অতি‌রিক্ত হ‌য়ে থাক‌লে পরবর্তীতে সমন্বয় করা হবে : ডিপিডিসি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক

করোনার এই পরিস্থিতিতে সবাই যখন নিরাপদে থাকতে ঘরবন্দী অবস্থায় রয়েছে সেই সময়টাতে সবার ঘরে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ পৌঁছে দিতে ডিপিডিসি’র প্রতিটি কর্মী সর্বোচ্চ আন্তরিতার সাথে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

ডিপিডিসি’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী বিকাশ দেওয়ান প্রেরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সম্প্রতি আমরা কিছু কিছু জায়গা থেকে গ্রাহকদের এপ্রিল /২০২০ মাসের বিদ্যুৎ বিলে কিছু অসামঞ্জস্য নিয়ে অভিযোগ পাচ্ছি যা আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের মধ্যেও আমাদের কর্মীরা আপনাদের সেবায় দিন-রাত মাঠে কাজ করছেন এবং অনেকেই করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

এই দুর্যোগকালীন সময়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে মিটার দেখা নিরাপদ নয়, কেননা এতে গ্রাহক ও বিদ্যুৎ কর্মী উভয়েরই করোনা আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকছে। তাই অনেক ক্ষেত্রেই পূর্ববর্তী মাসের বিদ্যুৎ বিলের সাথে সঙ্গতি রেখে গড় বিল করা হয়েছে যা কোন কোন ক্ষেত্রে অসামঞ্জস্যপূর্ণ হতে পারে।

যদি কোন গ্রাহক মনে করেন যে তার বিদ্যুৎ বিল খুব বেশি হয়েছে তাহলে অবশ্যই ডিপিডিসি’র কল সেন্টা‌র (16116) বা সংশ্লিষ্ট এন ও সি এস দপ্তরে অভি‌যোগ কর‌লে তা সমাধান করা হ‌বে।

এছাড়া, গড়কৃত বিল অতি‌রিক্ত হ‌য়ে থাক‌লে পরবর্তী বিলের সাথে তা অবশ্যই সমন্বয় করে এ অসামঞ্জস্যতা নিরসনের নিশ্চয়তা দিয়ে আপনাদেরকে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের অনুরোধ করছি। এ ব্যাপারে আপনাদের দু:শ্চিন্তার কোন কারণ নেই। আমাদের লক্ষ্য গ্রাহক সন্তুষ্টির সাথে নিরবচ্ছিন্ন সেবা দেয়া।

 

বিজনেস বাংলাদেশ / আতিক

এ বিভাগের আরও সংবাদ