ঢাকা দুপুর ১২:৩১, মঙ্গলবার, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মেসিকে চায় না যে ক্লাব

মহাতারকাদের দলে ভেড়ানোর জন্য অর্থের ভাণ্ডার উন্মুক্ত করে না দিয়ে তরুণ খেলোয়াড়দের উন্নতির দিকেই নজর দিতে চায় আরবি লাইপজিগ। লিওনেল মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার গুঞ্জন উঠতেই তাঁকে পাওয়ার দৌড়ে নেমে গেছে ম্যানচেস্টার সিটি, ইন্টার মিলান, পিএসজিসহ আরও কয়েকটি ক্লাব। নেইমারকে পেতে হাত বাড়িয়ে থাকে ইউরোপের বড় বড় ক্লাবগুলো।

কিলিয়ান এমবাপ্পেই বা বাদ যাবেন কেন—প্রতিটি দলবদলের বাজারেই তাঁকে পাওয়ার আশায় থাকে রিয়াল মাদ্রিদ বা বার্সেলোনার মতো সব বড় দলগুলো। ভাণ্ডারে অর্থ থাকলে কোন ক্লাবই বা এঁদের দলে টানতে না চাইবে! তবে মেসি, নেইমার বা এমবাপ্পেকে প্রয়োজন নেই, এমন ক্লাবও কিন্তু ইউরোপের ফুটবলে আছে। আর সেটা ইউরোপের শীর্ষ পাঁচ লিগের একটিতেই।

আরবি লাইপজিগ—জার্মান বুন্দেসলিগার ক্লাবটির মেসি, নেইমার, এমবাপ্পেকে দরকার নেই। এটা অন্য কেউ নয়, বলেছেন লাইপজিগেরই এক খেলোয়াড়। দলটির সুইডিশ উইঙ্গার এমিল ফোর্সবার্গ বলেছেন, ‘আমরা ধাপে ধাপে এগোতে চাই। আমার মনে হয় আমরা ঠিক পথেই আছি। ও হ্যাঁ, আমরা নেইমার, এমবাপ্পে বা মেসিকে কেনার জন্য লড়াইয়ে নামতে চাই না। আমরা তরুণ খেলোয়াড় কিনব, তাদের গড়ে তুলব।’ তেমন বড় কোনো তারকা লাইপজিগের নেই। তাই বলে যে দলটি ভালো করছে না এমন নয়।

জার্মান বুন্দেসলিগায় চলতি মৌসুমে শিরোপার দৌড়ে আছে লাইপজিগ। ২১ ম্যাচে ৪২ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান তৃতীয় স্থানে। সমান ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে তারকাসমৃদ্ধ বায়ার্ন মিউনিখ আছে শীর্ষে। আর ৪২ পয়েন্ট নিয়েই গোল ব্যবধানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বরুসিয়া ডর্টমুন্ড ম্যাচ খেলেছে একটি বেশি।

ফোর্সবার্গের কথা যে একেবারে অমূলক, তা কিন্তু নয়। গত বেশ কয়েক বছর ধরে তরুণ প্রতিভাবান খেলোয়াড় পরিচর্যা করার ব্যাপারে নাম কামিয়েছে ক্লাবটি। নাবি কেইটা লাইপজিগেই নাম কামিয়ে যোগ দিয়েছেন লিভারপুলে, যেকোনো মূহুর্তে লাইপজিগ ছেড়ে লিভারপুল বা বায়ার্নে যোগ দিতে পারেন জার্মান স্ট্রাইকার টিমো ভেরনার। দীর্ঘদিনের অধিনায়ক দিয়েগো ডেমে যোগ দিয়েছেন নাপোলিতে। বর্তমানে লাইপজিগে যারা আছেন, তাদের মধ্যে দায়োত উপামেকানো, ইব্রাহিমা কোনাতে, লুকাস ক্লস্টারম্যান, ক্রিস্টোফার এনকুনকু, নর্ডি মুকিয়েলে, মার্সেল হালস্টেনবার্গ, দানি অলমো প্রমুখ খেলোয়াড়কে নিয়ে আগামী কয়েক মাসেই বড় বড় ক্লাবগুলো কাড়াকাড়ি শুরু করে দিলে আশ্চর্য হবেন না যেন!

২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠিত লাইপজিগ বুন্দেসলিগায় জায়গা করে নিয়েছে ২০১৬–১৭ মৌসুমে। জার্মানির শীর্ষ লিগে অভিষেকের মৌসুমেই সবার নজর কাড়ে ক্লাবটি, লিগের প্রথম ১৩ ম্যাচে অপরাজিত থেকে। আর এবার তো তারা শিরোপা জয়ের লড়াই–ই করছে। পয়েন্ট তালিকার তিন নম্বরে আছে তারা। আর এ সব কিছুই সম্ভব হয়েছে তরুণ কোচ জুলিয়ান নাগেলসম্যানের অধীনে এক দল প্রতিভাবান খেলোয়াড়ের নৈপুণ্যে।

বিজনেস বাংলাদেশ/ এ আর

এ বিভাগের আরও সংবাদ
//graizoah.com/afu.php?zoneid=3354715