আজ শুক্রবার | ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং
| ২৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৫ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী | সময় : রাত ৮:২৭

মেনু

রাসুল (সা.)-এর হাদিসে যাঁরা শ্রেষ্ঠ মানুষ

রাসুল (সা.)-এর হাদিসে যাঁরা শ্রেষ্ঠ মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক
শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০১৯
১:৩২ পিএম
1249 বার

রাসুল (সা.)-এর হাদিসে কিছু লোককে শ্রেষ্ঠ মানুষ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এই নিবন্ধে সে ধরনের কিছু হাদিসই উল্লেখ করা হলো।

যারা কোরআন শেখে ও শেখায় :  হজরত উসমান ইবনে আফফান (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, তোমাদের মধ্যে সর্বশ্রেষ্ঠ ব্যক্তি সেই, যে নিজে কোরআন শেখে এবং অপরকে শিক্ষা দেয়।’ (বুখারি, হাদিস : ৫০২৭)

আলেম : হজরত আবু উমামাহ আল-বাহিলী (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, দুজন লোকের ব্যাপারে রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর কাছে আলোচনা করা হলো। তাঁদের একজন আবেদ (সাধক, অধিক ইবাদতকারী) এবং অন্যজন আলেম। রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, তোমাদের সাধারণ ব্যক্তির ওপর আমার যতখানি মর্যাদা, ঠিক তেমনি একজন আলেমের মর্যাদা একজন আবেদের ওপর। তারপর রাসুলুল্লাহ (সা.) বললেন, নিশ্চয়ই আল্লাহ, তাঁর ফেরেশতারা এবং আসমান-জমিনের অধিবাসীরা, এমনকি গর্তের পিঁপড়া ও পানির মাছ পর্যন্ত সেই ব্যক্তির জন্য দোয়া করে, যে মানুষকে কল্যাণকর জ্ঞান শিক্ষা দেয়। (তিরমিজি, হাদিস : ২৬৮৫)

সত্যবাদী : হজরত আবদুল্লাহ বিন আমর (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ (সা.)-কে বলা হলো, কোন ব্যক্তি সর্বোত্তম? তিনি বলেন, প্রত্যেক বিশুদ্ধ অন্তরের অধিকারী সত্যভাষী ব্যক্তি। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৪২১৬)

বিশুদ্ধ অন্তরের অধিকারী : একই হাদিসের শেষাংশে রাসুল (সা.)-কে জিজ্ঞেস করা হলো, সত্যভাষীকে তো আমরা চিনি, কিন্তু বিশুদ্ধ অন্তরের ব্যক্তি কে? তিনি বলেন, সে হলো পূতপবিত্র নিষ্কলুষ চরিত্রের মানুষ, যার কোনো গুনাহ নেই, নেই কোনো দুশমনি, হিংসা-বিদ্বেষ, আত্ম-অহমিকা ও কপটতা। (ইবনে মাজাহ, হাদিস : ৪২১৬)

পাওনা পরিশোধে উদার : আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী (সা.)-এর কাছে কোনো এক ব্যক্তির একটি বিশেষ বয়সের উট পাওনা ছিল। সেই পাওনার জন্য এলে তিনি সাহাবিদের বললেন, তার পাওনা দিয়ে দাও। তাঁরা সেই উটের সমবয়সী উট অনেক খোঁজাখুঁজি করলেন, কিন্তু পেলেন না। অবশ্য তা থেকে বেশি বয়সের উট পেলেন। তখন নবী (সা.) বললেন, তা-ই দিয়ে দাও। তখন লোকটি বলল, আপনি আমার প্রাপ্য পুরোপুরি আদায় করেছেন; আল্লাহ আপনাকেও পুরোপুরি প্রতিদান দিন। নবী (সা.) বললেন, যে পরিশোধ করার বেলায় উদার, সেই তোমাদের মধ্যে সর্বোত্তম ব্যক্তি। (বুখারি, হাদিস : ২৩০৫)

যে তার পরিবারের চোখে উত্তম : আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, তোমাদের মধ্যে সে-ই ভালো, যে তার পরিবারের কাছে ভালো। আর আমি আমার পরিবারের কাছে তোমাদের চেয়ে উত্তম।

মৃত ব্যক্তির সমালোচনা বর্জনকারী : এই হাদিসের শেষাংশে রাসুল (সা.) ইরশাদ করেন, আর তোমাদের কোনো সঙ্গী মৃত্যুবরণ করলে তার সমালোচনা পরিত্যাগ করো। (তিরমিজি, হাদিস : ৩৮৯৫)

বিজনেস বাংলাদেশ-/এমএ

শবে মেরাজের ফজিলত
০২ এপ্রিল ২০১৯ 1742 বার

ঈদুল আজহা ১২ আগস্ট
০২ অগাস্ট ২০১৯ 1268 বার

পবিত্র হজ ১০ আগস্ট
০২ অগাস্ট ২০১৯ 1172 বার

হজ হোক সেলফিমুক্ত
০৩ অগাস্ট ২০১৯ 1134 বার