আজ রবিবার | ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং
| ৭ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২২ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরী | সময় : সকাল ১১:৫৫

মেনু

যে পাঁচটি কথা বাবা-মাকে কক্ষনো বলতে হয়না

যে পাঁচটি কথা বাবা-মাকে কক্ষনো বলতে হয়না

ফিচার ডেস্ক
শুক্রবার, ০২ আগস্ট ২০১৯
১২:১০ অপরাহ্ণ
18 বার

সন্তান লালন-পালন করা প্রত্যেক বাবা-মার সবচেয়ে বড় দায়িত্ব। তবে সন্তানকে মানুষ করার ধরনটা সবার এক রকম হয় না। কেউ হয়তো একটু বেশি বকাবকি করেন, কেউ আবার একটু কম। সন্তান বড় হতে থাকলে, একটু একটু করে বাবা-মার সঙ্গে কথা বলাও শুরু করেন। এরপর যখন নিজের ব্যক্তিত্ব তৈরি হয়, তখন বাবা-মায়ের সঙ্গে অনেকে খুব খোলাখুলি সব কথা বলেন, আবার অনেকে তা করেন না।

কিন্তু এমন কিছু কথা রয়েছে, যা বাবা-মাকে না বলাই ভালো। তবে চলুন জেনে নিই কোন কথাগুলো বাবা-মাকে বলবেন না-

১. ‘আমি তোমাকে ঘৃণা করি’- এই কথাটা যেকোনো অভিভাবকের কাছে সবচেয়ে বড় ধাক্কা। সন্তান যত বড়ই হোক বা যত ছোটই হোক- এ কথা কখনোই বলা উচিত নয়।

২. ‘তোমরা আমাকে জন্ম দিলে কেন’- সন্তানকে বকাবকি করার সময়ে বা তার কোনো বিষয়ে অসুবিধা প্রকাশ করলে অনেক সময়েই অভিভাবকদের এই কথা শুনতে হয়। বিশেষ করে বিবাহবিচ্ছেদের পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি শুনতে হয় এই অভিযোগ। কিন্তু এই কথাটাও সবচেয়ে বেশি আঘাত করে তাদের।

৩. ‘তুমি বোন বা ভাইকে বেশি ভালোবাসো’- অভিভাবকের কাছে তার সব সন্তানই সমান। হয়তো স্নেহের বহিঃপ্রকাশটা একেকজনের ক্ষেত্রে একেক রকম হয়ে থাকে। কিন্তু এটা কখনো ভাবা উচিত নয় যে, অন্য সন্তানকে তিনি বেশি ভালবাসেন এবং সেটা ভেবে তাকে কটু কথা বলা একেবারেই উচিত নয়।

৪. ‘তোমরা যদি আমার বাবা-মা না হতে তবে ভালো হতো’- সম্ভবত প্রথম কথাটির চেয়েও এই কথাটি অনেক বেশি কষ্ট দেয় অভিভাবকদের।

৫. ‘তোমাকে এখন সময় দিতে পারব না’- বাবা-মায়েরা সন্তানকে বড় করে তোলার সময়ে অনেক আত্মত্যাগ করেন। কিন্তু উল্টোটা সব সময়ে দেখা যায় না। যদি ব্যস্ততার কারণেও বয়স্ক অভিভাবককে সময় দিতে না পারা যায়, তাহলেও এভাবে কথা বলা কখনো শোভন নয়।

বিজনেস বাংলাদেশ-/এমএ

ধনী-গরিব বৈষম্য বাড়ছে
০৫ অক্টোবর ২০১৭ 109170 বার

রাতে দেরি করে খেলেই বিপদ
১৪ অক্টোবর ২০১৭ 65908 বার