আজ শনিবার | ৭ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং
| ২২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ৯ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরী | সময় : রাত ১১:১৩

মেনু

“ভার্চুয়াল এডিক্টেড’  সেই শিখা

“ভার্চুয়াল এডিক্টেড’ সেই শিখা

বাবুল হৃদয়
শনিবার, ৩০ নভেম্বর ২০১৯
৮:২৪ পিএম
47 বার

“ভার্চুয়াল এডিক্টেড’ হলেন শিখা খান। তবে বাস্তবে নয় ওয়েব সিরিজে। সিরিজটির নাম “ভার্চুয়াল এডিক্টেড’ । পরিচালনা করছেন নির্মাতা এম. রানা সিদ্দিক।

সম্প্রতি কেরানীগঞ্জের বসুন্ধরা রিভার ভিউ প্রকল্পের বিভিন্ন লোকেশনে নির্মিত হল সল্পদৈর্ঘ চলচ্চিত্র “ভার্চুয়াল এডিক্টেড”। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন এ প্রজন্মের মডেল শিখা খান ও নীল মিত্র। বিজনেস বাংলাদেশকে বিষয়টি জানিয়েছেন শিখা খান নিজেই । ওয়েবে শিখা ছাড়াও অভিনয় করেছেন নীল মিত্র ও নাবিলসহ অনেকে।

একজন তরুণের ভার্চুয়াল আসক্তি তথা মেসেঞ্জার, ইমু, ফেসবুকের প্রতি প্রচন্ড নেশা ও তার করুণ পরিনতি তুলে ধরা হয়েছে শর্টফিল্মটিতে। বকচুড়ি এন্টারটেইনমেন্ট প্রযোজিত শর্টফিল্মটিতে ডিওপি হিসেবে কাজ করেছেন শামসুল আলম। খুব শিঘ্রই বকচুড়ি এন্টারটেইনমেন্ট এর ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার হবে।

কাজ নিয়ে শিখা খান বলেন- ” আমি রিসেন্টলি ওয়েব সিরিজে এর কাজ করছি না। কিন্তু রানা ভাই রিকুয়েষ্ট করাতে কাজটি করেছি। এর আগেও রানা ভাইয়ের সাথে বেশি কিছু কাজ করেছি। সেজন্য না করতে পারিনি। তাছাড়া গল্পটিতে সুন্দর একটি মেসেজ রয়েছে এই জন্যই কাজটি করেছি। আশা করি দর্শকদের ভালো লাগবে।

শর্টফিল্ম নিয়ে নীল মিত্র বলেন- রানা সিদ্দিক ভাইয়ের সাথে এর আগেও দুটি শর্টফিল্ম এ কাজ করেছি। সত্যি কথা বলতে ভাইয়া সাথে কাজ করতে অনেক মজা লাগে। ভাইয়া খুবই হেল্প করে কাজে। সল্প বাজেট নিয়েও ভাইয়া খুব গুছিয়ে কাজ করে। রানা ভাইয়া সাথে কাজ করার আলাদা একটা মজা আছে। যারা কাজ করেছেন তারা সবাই জানে ভাইয়া কতটা আন্তরিক।

মানিকগঞ্জের মেয়ে শিখা খান মডেলিং ও মিউজিক ভিডিওতে বেশ খানিকটা এগিয়ে গেছেন। ছোটবেলা থেকে যে স্বপ্নটি বুকে ধারণ করে এগিয়ে গেছেন আজ তিনি মিডিয়ায় প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পথে। স্কুল-কলেজে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে নিয়মিত পারফর্ম করে নিজেকে তৈরি করে নেন। এখন পড়ছেন অনার্সে। ইডেন মহিলা কলেজের বাংলা বিভাগের ছাত্রী তিনি। বাবা-মায়ের চার সন্তানের দ্বিতীয় তিনি। বাবা বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা। মা গৃহিনী।

শিখার মিডিয়ায় প্রথম যাত্রা শুরু হয় ২০১৫ সালে মডেলিং দিয়ে। আকবরিয়া লাচ্ছা সেমাইয়ের বিজ্ঞাপনের মডেল হয়ে সকলের নজর কাড়েন। বিজ্ঞাপনটি নির্মাণ করেছিলেন জামান রায়হান। এরপর রাকিবুল ইসলাম রাজনের পরিচালনায় ভ্যাটের উপর সরকারি বিজ্ঞাপন, রবি সিমের ক্রিকেটারদের নিয়ে বিজ্ঞাপনের মডেল, মিতালী থ্রি পিস, কানিজ ফ্যাশন বার্ডসহ আরও বেশ কিছু বিজ্ঞাপনের মডেল হয়েছিলেন। হাতে আছে বেশ কয়েকটি বিজ্ঞাপন। এরমাঝে নিজেকে জড়িয়ে ফেলেন মিউজিক ভিডিওর মডেল হিসেবে।

প্রথম এফ এ সুমনের গানের মডেল হয়ে যাত্রা শুরু করেন। এরপর এক এক করে ১৫টি গানের মডেল হয়েছেন। কাজ চলছে বেশ কয়েকটি গানের। আগামী মাসের ৩ তারিখে ধ্রুব মিউজিক স্টেশন থেকে মোহনা ও হৃদয়ের গাওয়া গানের ভিডিও প্রকাশ পাবে। এই গানে শিখা মডেল হিসেবে নিজেকে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করেছেন।
মডেলিং এবং মিউজিক ভিডিও ছাড়াও শিখা খান অভিনয়েও অনেকটা এগিয়ে গেছেন। এখন শুধু জ্বলে ওঠার অপেক্ষায় শিখা খান। এ পর্যন্ত বেশ কয়েকটি একক নাটকে অভিনয় করেছেন।

তারমধ্যে অপারেশন সার্চলাইট, বিসিএস ক্যাডার অন্যতম। স্যুটিং ও কথা চলছে কয়েকটি নাটকের নির্মাতার সঙ্গে। শিখা খান জানান মিডিয়ার সকল মাধ্যমেই আমি বিচরণ করতে চাই। কাজের প্রতি একাগ্রতা থাকলে আমি জানি নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছানো যায়। সে লক্ষ্যেই নিজেকে তৈরি করে নিচ্ছি।

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ

কাঁদলেন মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ
০৪ অক্টোবর ২০১৭ 634061 বার

উষ্ণতা ছড়াচ্ছেন শাহরুখ কন্যা
০৫ অক্টোবর ২০১৭ 397399 বার