ঢাকা দুপুর ১:০০, মঙ্গলবার, ১৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং, ৫ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

পঞ্চগড়ে বাস-ইজিবাইক সংঘর্ষ, নিহত ৭

পঞ্চগড় থেকে তেতুলিয়াগামী যাত্রীবাহী মিনি বাসের চাপায় অটোচালক ও নব দম্পতিসহ সাত জন আরোহী নিহত হয়েছে।

শুক্রবার (০৮ নভেম্বর) দুপুরে পঞ্চগড়-বাংলাবান্ধা মহাসড়কের মাগুরমাড়ি চৌরাস্তা আমতলী এলাকায় এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটে। ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিস উপ-পরিচালক ওয়াদুদ হোসেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতদের উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন।

৭ জন নিহত হওয়ার খবরটি নিশ্চিত করেছেন পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার নিরঞ্জন সরকার।

নিহতরা হলেন, তেঁতুলিয়া উপজেলার ডাকবদলি মাঝিপাড়া এলাকার মজিবুল হকের ছেলে লাবু ইসলাম (২৯) ও তার নববধু মুক্তি বেগম (১৯), সাতমেড়া ইউনিয়নের চেকরমারী এলাকার জয়নালের ছেলে অটো চালক রফিক (২৮), রায়পাড়া এলাকার মফিজ আলীর ছেলে মাকুদ হোসেন (৪৫), অমরখানা ইউনিয়নের মৃত বসির উদ্দীনের ছেলে আকবর আলী (৬৫) এবং তার স্ত্রী নূরীমা (৫৫), নার্গিস (২৮) ।

ঘটনার পর থেকেই মহাসড়ক অবরোধ করে রেখেছে বিক্ষুব্ধ স্থানীয় এলাকাবাসী। এসময় উদ্ধার কাজে অংশ নেওয়া হাইওয়ে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও সাংবাদিকদের ওপর হামলা করে বিক্ষুব্ধরা। পরে বিজিবি ও অতিরিক্ত পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কাজী ব্রাদার্স নামের তেতুলিয়াগামী একটি মিনিবাস ব্যাটারি চালিত অটোবাইকটিকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই পাঁচজন নিহত হয় এবং গুরুতর অবস্থায় আহত দুইজনকে (নববধু মুক্তি (১৯) ও আকবর আলী (৬৫)) পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. সিরাজউদ্দৌলা পলিন তাদের মৃত ঘোষাণা করেন।

এদিকে মুক্তির দুলাভাই শহিদুল ইসলাম জানান, আমার শ্যালিকা মুক্তি তার বিয়ে হওয়ার ২৮ দিন হয়েছে। আজ সে শশুর বাড়ি থেকে স্বামীসহ তার বাবার বাড়িতে বেড়াতে যাচ্ছিল। এসময় মাগুরমাড়ি চৌরাস্তা আমতলী এলাকায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

বিজনেস বাংলাদেশ-বি/এইচ

এ বিভাগের আরও সংবাদ