ঢাকা বিকাল ৫:৫৫, বুধবার, ১লা এপ্রিল, ২০২০ ইং, ১৮ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

এসএসসি পরীক্ষায় বহিষ্কারে রেকর্ড

চলমান এসএসসি পরীক্ষার চতুর্থ দিনে (রোববার) ছয়জন শিক্ষকসহ মোট ১৮২ জনকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এছাড়া আজ সারাদেশে ৬ হাজার ৬০ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলো।

রোববার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ বিভাগ থেকে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

তথ্য মতে, এসএসসি পরীক্ষার চতুর্থ দিনে সাধারণ আট বোর্ডে ইংরেজি (আবশ্যিক) ২ম পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। এ পরীক্ষায় ঢাকা বোর্ডে ৩২ জন পরীক্ষার্থী ও চারজন শিক্ষক, চট্টগ্রাম বোর্ডে পাঁচজন পরীক্ষার্থী, রাজশাহীতে পাঁচজন, বরিশালে ৩৫ জন, সিলেটে ছয়জন, দিনাজপুরে ৩৮ পরীক্ষার্থী ও দু’জন শিক্ষক, কুমিল্লায় ২৭ জন, ময়মনসিংহে ১৭ জন ও যশোর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ১১ জন পরীক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পাঠানো তথ্যে দেখা গেছে, ইংরেজি ২য় পত্র পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী অনুপস্থিতির সংখ্যাতেও রেকর্ড হয়েছে। এ দিন ৯টি বোর্ডে মোট ৬ হাজার ৬০ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিলো।

প্রসঙ্গত, গত ৩ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) সারাদেশে একযোগে মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। এ বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড এবং মাদরাসা ও কারিগরি বোর্ডের আওতায় অংশ নিচ্ছে ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন শিক্ষার্থী। বিদেশের আটটি কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছে ৩৪২ জন।

চলতি বছর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও কেন্দ্র বৃদ্ধি পেলেও বাড়েনি শিক্ষার্থীর সংখ্যা। গতবারের চেয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমেছে ৮৭ হাজার ৫৫৪ জন।

এবার ২৮ হাজার ৮৮৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা তিন হাজার ৫১২টি কেন্দ্রে পরীক্ষা দিচ্ছে।

নয়টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের আওতায় এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ১৬ লাখ ৩৫ হাজার ২৪০ জন। যার মধ্যে ছাত্রী আট লাখ ৪৩ হাজার ৩২২ জন। ছাত্রের তুলনায় ৫১ হাজার ৪০৪ জন ছাত্রী বেশি।

মাদরাসা বোর্ডের দাখিল পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে দুই লাখ ৮১ হাজার ২৫৪ জন। ছাত্রী অংশ নিচ্ছে এক লাখ ৪৭ হাজার ১১৬ জন। ছাত্রের তুলনায় ১২ হাজার ৯৭৮ জন বেশি।

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষায় এক লাখ ৩১ হাজার ২৮৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক এস এম আমিরুল ইসলাম বলেন, ‘প্রশ্নফাঁস রোধে এবার সব ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘নির্ধারিত সময়ের ৩০ মিনিট আগে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা কেন্দ্রে যেতে হবে। প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীরা ২০ মিনিট বেশি সময় পাবে।

বিজনেস বাংলাদেশ/এম মিজান

 

এ বিভাগের আরও সংবাদ