আজ রবিবার | ১৮ আগস্ট, ২০১৯ ইং
| ৩ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৬ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী | সময় : সকাল ১১:৪৭

মেনু

ঈদুল আযহাকে ঘিরে শানওয়ালাদের কদর

ঈদুল আযহাকে ঘিরে শানওয়ালাদের কদর

জুনেদ আহমদ,সিলেট
শনিবার, ১০ আগস্ট ২০১৯
৫:০৫ অপরাহ্ণ
19 বার

কাঠ দিয়ে তৈরি খাপের উপরে রয়েছে পাথর। এ খাপের মধ্যে আছে সাইকেলের মতো বসার স্থানও। সেখানে বসে প্যাডেলিং করলে ঘুরতে থাকে পাথর। আর সেই পাথরের ছোঁয়ায় ধারালো হয়ে ওঠে পুরনো ছুরি-বটি।

কোরবানির ঈদ সামনে রেখে এ যন্ত্র কাঁধে নিয়ে সিলেট নগরের পাড়া-মহল্লায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন ভ্রাম্যমাণ শানওয়ালারা। তারা হাঁকছেন- ‘‘এই ধার করাবেন ধার। দা-চাক্কু (ছুরি) ধার’’। এমন হাঁক শুনে গৃহস্থদের মধ্যে দা-ছুরি শান দেয়ানোর তাগিদ বেড়ে যায়। ডাক দিয়ে নিয়ে আসেন বাসা-বাড়িতে। দরদামের পর ভোঁতা দা-ছুরি শান দিয়ে ধারালো করে দেন তারা।

শনিবার দুপুরে নগরীর হাওয়াপাড়ায় দেখা হয় এমনই একজন শানওয়ালার সঙ্গে। তিনি জানালেন, এখন আগের মতো তাদের কদর নেই। তবে কোরবানির ঈদের সময় তাদের আয় কিছুটা বাড়ে। একেকটি দা (বটি) শান দিয়ে তারা ৩০ থেকে ৫০ টাকা এবং চাক্কু (ছুরি) শান দিয়ে ২০ থেকে ৪০ টাকা পান। তারা দা-ছুরি ছাড়াও চাপাতি, শীলপাটাও ধার করে থাকেন বলে জানালেন তিনি।

আব্দুল মজিদ নামের এই শানওয়ালার বাড়ি হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায়। দীর্ঘ ৩০ বছরেরও বেশি সময় ধরে তিনি এ পেশায় রয়েছেন। তবে এখন এ পেশায় টিকে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে। তিনি বলছেন, এখন আগের মতো আয় নেই। এ কারণে এ পেশায় টিকে থাকা কঠিন হয়ে পড়েছে। অনেকেই এ পেশা ছেড়ে অন্য পেশায় চলে যাচ্ছেন।

ভ্রাম্যমাণ শানওয়ালা ছাড়াও নগরের বিভিন্ন কামারশালায় এসব দা-ছুরি শান দেয়ার কাজ করা হয়ে থাকে। একই সঙ্গে নতুন দা-ছুরিও কিনতে অনেকেই ছুটে যাচ্ছেন কামারশালায়। সব মিলিয়ে কোরবানির ঈদে প্রাণ ফিরে পায় এসব পেশার মানুষ। এ কারণে এ সময়ের অপেক্ষায় থাকে তারা।

বিজনেস বাংলাদেশ-/ ইএম

সড়ক দুর্ঘটনায় নারী নিহত
২৪ অক্টোবর ২০১৭ 263846 বার

সাতক্ষীরায় সার্কিট হাউজে আগুন
২১ অক্টোবর ২০১৭ 249772 বার

ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে তীব্র যানজট
২৩ অক্টোবর ২০১৭ 249434 বার

২ হাজার পিস ইয়াবাসহ যুবক আটক
২৩ অক্টোবর ২০১৭ 249275 বার

সীতাকুণ্ডে অস্ত্রসহ গ্রেফতার
২৩ অক্টোবর ২০১৭ 248846 বার