আজ বৃহস্পতিবার | ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ইং
| ২ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ১৬ সফর, ১৪৪১ হিজরী | সময় : রাত ১:০৭

মেনু

`ইসলামী ব্যাংকিং নিয়ে অনেক প্রশ্ন আছে’

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ ছবি: বিজনেস বাংলাদেশ

`ইসলামী ব্যাংকিং নিয়ে অনেক প্রশ্ন আছে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
সোমবার, ১৩ মার্চ ২০১৭
৪:৩৬ পূর্বাহ্ণ
1277272 বার

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ বলেছেন, ইসলামি ব্যাংকিংয়ের নামে অনেক প্রশ্ন আছে। দেশের ইসলামি ব্যাংকগুলো ইসলামি ব্যাংকিং না করে অলটারনেটিভ ব্যাংকিং করছে। ইসলামী ব্যাংকিংয়ে লাভ-লোকসানে উভয়ের অংশীদারিত্ব থাকার কথা হলেও লোকসানের অংশীদার হচ্ছেন না গ্রাহক।

বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ) রাজধানীর বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট মিলনায়তনে প্রতিষ্ঠানটির গবেষণাপত্র প্রকাশ অনুষ্ঠানের আলোচনায় তিনি এ কথা বলেন।

ইব্রাহিম খালেদ বলেন, আমার কাছে মনে হয়েছে, সময় এসেছে ইসলামী ব্যাংকিং আইন করার। যদিও এটি খুব সহজ কাজ নয়। ধৈর্য্য সহকারে করা গেলে ইসলামী ব্যাংকগুলো বাঁচানো সম্ভব। ইসলামী ব্যাংকিংয়ের নামে অনেক প্রশ্ন আছে, সেগুলোর সমাধান করা সম্ভব।

তিনি বলেন, অ্যাকশন ডাজনট ফলো সুপারভিশন বাংলাদেশ ব্যাংক। একটি ব্যাংকের পরিচালকের বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়েছে, তাকে সরিয়ে দিতে কোন প্রবলেম নাই। তারপরও সরাতে পারেনি, কারণ ব্যাংকগুলোর সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের দুর্বলতা আছে। আমি‍ও বাংলাদেশ ব্যাংকে ছিলাম, আমিও দুর্বলতার ভাগি।

খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ বলেন, এখন সরকারের সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের কোন সর্ম্পক নাই। আগে সরকার বাংলাদেশ ব্যাংকে এডভাইস করলেও এখন করে না।

এসএ চৌধুরী বলেন, দেশের ক্ষুদ্র মাঝারি শিল্পখাতের উপর জোর দিতে হবে। এ খাতের উন্নয়ন হলে দেশ আরও এগিয়ে যাবে। তিনি আরও বলেন, ব্যাংকগুলোর বার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশের নামে বিপুল পরিমান অর্থ অপচয় না করে ব্যাংকের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা যেতে পারে।

বিআইবিএম এর সুপারনিউমারি অধ্যাপক হেলাল আহমেদ চৌধুরী বলেন, ইসলামী ব্যাংক আইন হওয়া দরকার। জমির অভাবে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বে (পিপিপি) প্রকল্প হাতে নেওয়া যাচ্ছে না।

আরেক সুপারনিউমারি অধ্যাপক ইয়াছিন আলী বলেন, রেমিট্যান্স এ গতি ফেরানোর উদ্যোগ নিতে হবে। কারণ রেমিট্যান্স কমে গেছে ৭০ শতাংশ।

বিআইবিএম মহাপরিচালক প্রফেসর ড. তৌফিক  আহমাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গর্ভনর আবু হেনা মোহা. রাজি হাসান। স্বাগত বক্তব্য দেন, বিআইবিএম পরিচালক প্রফেসর ড. প্রশান্ত কুমার ব্যানার্জি প্রমুখ।

ধনী-গরিব বৈষম্য বাড়ছে
০৫ অক্টোবর ২০১৭ 119745 বার

বিকাশে কেনা যাবে বিমান টিকেট
১২ অক্টোবর ২০১৭ 76560 বার

সূচকের সঙ্গে বেড়েছে লেনদেন
১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 39625 বার